কলেজের তালিকা

চট্টগ্রামের সেরা কলেজ সমূহের তালিকা

প্রিয় ভিউয়ার্স আপনাদেরকে আমাদের পেজে স্বাগতম। আজ আমরা আপনাদের মাঝে আলোচনা করতে এসেছি চট্টগ্রামের সেরা কলেজসমূহ সম্পর্কে। চট্টগ্রাম বাংলাদেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর। চট্টগ্রাম শহরটি বন্দর শহর নামে পরিচিত। ঢাকার পরে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ শহর হচ্ছে চট্টগ্রাম। চট্টগ্রাম শহর আছে শিল্প  শহর।

চট্টগ্রাম বন্দরটি বিশ্বের প্রাচীনতম বন্দর গুলোর মধ্যে একটি।চট্টগ্রাম বন্দর গুলোর মধ্যে অনেকগুলো উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আছে আরো অনেকেই সেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের খোঁজ করে থাকেন। বিশেষ করে তাদের জন্য আমাদের আজকের এই পোস্টটি।আপনারা যারা চট্টগ্রামের সেরা কলেজ সমূহ খুঁজতেছেন তাদের আর চিন্তা করতে হবে না আমরা তাদের জন্য নিয়ে এসেছি সেরা কলেজের লিস্ট।

আপনারা এই পেজটি ভিজিট করলেই পেয়ে যাবেন আপনার পছন্দের সেরা কলেজ চট্টগ্রাম শহরের।কলেজের পড়াশোনার মান এবং বিগত দিনের রেজাল্ট এর উপর ভিত্তি করে কলেজ সমূহে তালিকা গুলো সাজানো হয়েছে আপনাদের জন্য। আমরা আশা করব আমাদের দেওয়া পোস্টে যে সকল কলেজ সমূহ দেয়া হয়েছে ।সকল কলেজ আপনাদের পছন্দ হবে আপনাদের সন্তানদের পড়ালেখার জন্য। তাই আর দেরি না করে চলেন মূল বিষয় চলে যায় আমাদের সঙ্গেই থাকুন আর দেখতে থাকুন।

চট্টগ্রামের সেরা কলেজ সমূহের তালিকা:

১/চট্টগ্রাম কলেজ ২/ ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজ  ৩/সরকারি কমার্স কলেজ  ৪/সরকারি সিটি কলেজ   ৫/চট্টগ্রাম ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক কলেজ ৬/বি এ এফ শাহীন কলেজ ৭/চট্টগ্রাম মহিলা কলেজ ৮/হাজী মোহাম্মদ মহসিন কলেজ ৯/ইস্পাহানি পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ ১০/ক্যান্টনমেন্ট ইংলিশ স্কুল এন্ড কলেজ।

১/চট্টগ্রাম কলেজ:

চট্টগ্রাম কলেজ বাংলাদেশের একটি শীর্ষস্থানে এবং ঐতিহ্যবাহী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। চট্টগ্রাম শহরে চকবাজার এলাকার কলেজ রোডে অবস্থিত। এ কলেজ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত। ১৮৬৯ সালে কলেজে কে উচ্চমাধ্যমিক কলেজ হিসেবে উন্নয়ন করা হয়। এই কলেজে মানবিক ও বিজ্ঞান বিভাগে ২০ বিভাগ রয়েছে অধ্যয়নের জন্য। ১৫টি প্রাতিষ্ঠানিক এবং ১২টি আবাসিক ভবন নিয়ে চট্টগ্রাম কলেজের অবস্থান।

২/ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজ:

ফৌজদারহাট ক্যাডেট কলেজ ২৮ এপ্রিল ১৯৫৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। স্কুলটির বয়স ৬৩ বছর। বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধে এ জাতীয় ক্ষেত্র  ক্যাডেট কলেজের ছাত্ররা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। কলেজটি ঢাকা চট্টগ্রাম বোর্ডের পাশে অবস্থিত। ১৯৬৫ সাল পর্যন্ত এটি ইস্ট পাকিস্তান ক্যাডেট কলেজ নামে পরিচিত ছিল। প্রাথমিকভাবে সেনাবাহিনীর জন্য যোগ্য কর্মকর্তা তৈরি করাই ছিল কলেজের প্রতিষ্ঠার মূল লক্ষ্য।

৩/সরকারি কমার্স কলেজ:

সরকারি কমার্স কলেজ চট্টগ্রাম  সরকারি বাণিজ্য কলেজ বা শুধুমাত্র কমার্স কলেজ নামে পরিচিত। বাংলাদেশে মাত্র দুটি সরকারি কমার্স কলেজ আছে। ১৯৪৭ সালের ৫১ একর জমি তে কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয়। বর্তমানে কলেজ উচ্চ মাধ্যমিক এ স্নাতক এবং স্নাতকোত্তর  পর্যায়ে শিক্ষার কার্যক্রম পরিচালিত।

৪/সরকারি সিটি কলেজ:

১৯৫৪ সালে সরকারি সিটি কলেজ প্রতিষ্ঠিত হয়। এই কলেজটির প্রথম আইন কলেজ হিসেবে যাত্রা শুরু করে। বর্তমানে এখন উচ্চ মাধ্যমিক থেকে শুরু করে স্নাতকোত্তর পর্যায়েও পাঠদান চালু রয়েছে কলেজটিতে।স্নাতক পর্যায়ে এখানে ডিগ্রী পাস ছাড়াও চার বছর মেয়াদী সম্মান কোর্স চালু রয়েছে এ কলেজে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ১৬১৬ জন।

৫/চট্টগ্রাম ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক কলেজ:

চট্টগ্রাম ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক কলেজ অবস্থিত বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর নিয়ন্ত্রণের একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। ক্যান্টনমেন্ট পাবলিক স্কুল ফাউন্ডেশন কর্তিক  প্রতিষ্ঠানটি পরিচালিত হয়। এ প্রতিষ্ঠানটি ১৯৬১ সালে ২৩ শে অক্টোবর যাত্রা শুরু করে। প্রতিষ্ঠানের পরিবেশ খুব সুন্দর পড়ালেখার মান ও খুব উন্মত।

৬/বি এ এফ শাহীন কলেজ:

এ কলেজটি চট্টগ্রাম জেলার সিটি কর্পোরেশন এলাকায় অবস্থিত। কর্ণফুলী নদীর তীরে বিমান বাহিনীর জহুর আহমেদ বিমান ঘাঁটির ভেতরে অবস্থিত। এটি চট্টগ্রাম অন্যতম ঐতিহ্যবাহী এবং মানসম্মানও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। কলেজটি ১৯৬১ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় এটি বাংলাদেশ বিমান বাহিনী কর্তৃক পরিচালিত।

৭/চট্টগ্রাম মহিলা কলেজ:

চট্টগ্রাম মহিলা কলেজ চট্টগ্রামের নাসিরাবাদ এলাকায় অবস্থিত। চট্টগ্রামে প্রথম সরকারি মহিলা কলেজ বলে কে স্থাপন করা হয়। ১৯৫৭ সালের পূর্বে মহিলাদের জন্য আলাদা কোন কলেজ ছিল না। ১৯৬১ সাল থেকে ১৯৬২ সালের দিকে কলেজটি নাসিরাবাদ এলাকায় বর্তমান স্থানান্তর করা হয়। চট্টগ্রাম সরকারি কলেজে এইচএসসি ,অনার্স, মাস্টার্স এবং ডিগ্রী চালু আছে।

৮/হাজী মোহাম্মদ মহসিন কলেজ:

হাজী মোহাম্মদ মহসিন কলেজ চট্টগ্রামের একটি ঐতিহ্যবাহী সরকারি কলেজ। এটি চট্টগ্রাম শহরের কলেজ রোড এলাকায় অবস্থিত। কলেজটি একটি পাহাড়ে অবস্থিত।১৮৭৪ সালে দানবীর হাজী মোহাম্মদ মহসিন ফান্ডের অর্থ চট্টগ্রামে এই কলেজটি অবস্থিত হয় ।এই কলেজে শিক্ষার্থীর সংখ্যা ২০ হাজার।

৯/ইস্পাহানি পাবলিক কলেজ:

এই কলেজটি একটি বেসরকারি কলেজ। এ কলেজের প্রতিষ্ঠাতা মির্জা আহমেদ ইস্পাহানি। ১৯৭৯ সালে ইস্পাহানী পাবলিক স্কুল এন্ড কলেজ স্থাপন করেন। ১৯৮৯থেকে ৯০ শিক্ষাবর্ষে উচ্চ মাধ্যমিক বিভাগ চালু হয়।

১০/ক্যান্টনমেন্ট ইংলিশ স্কুল এন্ড কলেজ:

কলেজটি চট্টগ্রাম সেনানিবাসে অবস্থিত। এই কলেজটি ১৯৯৮ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। ২০০৫ সালে এটি ক্যান্টনমেন্ট স্কুলের সঙ্গে একত্রিত হয়। ২০১০ সালে প্রতিষ্ঠানটি উচ্চ মাধ্যমিক শাখায় উন্নতি করা হয়। এরপর প্রতিষ্ঠানের নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় ক্যান্টনমেন্ট ইংলিশ স্কুল এন্ড কলেজ।

সর্বশেষে বলতে চাচ্ছি যে, এতক্ষন আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদের আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। আপনাদের মূল্যবান সময় আমাদের সঙ্গে দেবার জন্য ধন্যবাদ। আমরা এতক্ষণ চেষ্টা করছি আপনাদের সামনে তুলে ধরার জন্য চট্টগ্রামের সেরা কলেজসমূহ। জানিনা কতটুকু দিতে পারছি আমাদের এই পোষ্টের মাধ্যমে।তবে আশা রাখছি আমরা যে সকল কলেজের তালিকা আপনাদের সামনে দিয়েছি এগুলো আপনাদের পছন্দ হবে এবং ভালো লাগবে আপনার সন্তানকে পড়ালেখা করার জন্য। ভালো থাকবেন আল্লাহ হাফেজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.