দিবস

১৬ই ডিসেম্বর বিজয় দিবসের উক্তি

প্রিয় ভিউয়ার্স আপনাদেরকে আমাদের পেজে স্বাগতম। ১৬ই ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস আর এই দিনটি আমরা সবাই পালন করে থাকি। এই দিনটি বাংলাদেশের ঐতিহাসিক একটি স্মরণীয় দিন।এই দিনে তাৎপর্য এবং গুরুত্ব অনেক যা বলে হয়তোবা শেষ করা সম্ভব নয়। তাই আজ আমরা আপনাদের মাঝে এসেছি ১৬ ই ডিসেম্বর বিজয় দিবসের উক্তি শেয়ার করতে। আপনারা অনেকেই হয়তো ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবসের উক্তি খুজতেছেন। আমাদের সামনে চলে আসতেছে ১৬ই ডিসেম্বর বিদায় দিবস আর অনেক বেশি দেরি নয়। মহান বিজয় দিবসে আপনারা এই ১৬ ই ডিসেম্বরে উক্তি খুঁজে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বক্তব্য ভাষণ ইত্যাদি প্রদান করতে পারেন।

তাই আপনাদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে আমরা নিয়ে আসছি ১৬ ই ডিসেম্বর বিজয় দিবসের উক্তি।আপনারা অনেকেই বিভিন্ন ওয়েবসাইটে খুজতেছেন ১৬ই ডিসেম্বর বিজয় দিবসের উক্তি। আর হয়তোবা আপনাদের মনের মত উক্তি খুঁজে পাচ্ছেন না এজন্য আপনাদের ভালো লাগছে না আর সেই উক্তিগুলো আপনার সংগ্রহ করতেছেন না।তবে আমরা আশা করব ,আমাদের পোস্টে দেওয়া ১৬ই ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবসের যে উক্তি আপনারা সংগ্রহ করে আপনাদের প্রয়োজনীয় কাজে ব্যবহার করতে পারবেন।

১৬ই ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবসের উক্তিতে ব্যক্ত করা হয়েছে কিভাবে বাংলাদেশকে স্বাধীন করা হয়েছে, কিভাবে বাংলাদেশের স্বাধীনতার অর্জন হয়েছে, কিভাবে বিজয় দিবস আমাদের হয়েছে ,কিভাবে আমরা একটি স্বাধীন সার্বভৌমত্ব পেয়েছি বিভিন্ন ধরনের উক্তি প্রদান করা হয়েছে।যা পাঠকের জন্য ভালো লাগবে এবং পাঠক বিভিন্ন স্থানে উক্তিগুলো প্রদান করতে পারবেন তবে চলুন আর দেরি নয় আমাদের সঙ্গেই থাকুন আর দেখতে থাকুন।

১৬ই ডিসেম্বর বিজয় দিবসের উক্তি

১৯৭১ সালে ১৬ই ডিসেম্বর দীর্ঘ ৯ মাস রক্তক্ষয়ী  যুদ্ধের মাধ্যমে বিজয়কে চিনি এনেছিল বাংলাদেশের জনতারা। বাংলাদেশের ছাত্র , জনতা তাদের জীবনের মায়া কে ত্যাগ করে বাংলাদেশের উপরে আসা যে ঝড় তাকে সামলানোর জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েছিলেন। ১৯৫২ সালে ভাষা আন্দোলনকে কেন্দ্র করে ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সৃষ্টি হয়। যখন বাংলাদেশের উপর এক প্রভাব পড়ে থাকে ১৯৫২ সালের আর সেই প্রভাবটি নিয়ে যায় ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধে। যখন ১৯৫২ সালে পশ্চিম পাকিস্তান পূর্ব পাকিস্তানকে শোষণ করতেছিল আর তারা আমাদের মায়ের মুখের মাতৃভাষাকে উর্দু করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল।

সেই সিদ্ধান্ত যখন বাঙালির কাছে এসে পৌঁছালো বাঙালি তা মেনে নিতে পারিনি। বাঙালির একটাই কথা ছিল মায়ের মুখের ভাষা বাংলা ।আর এ ভাষা কখনো উর্দুতে পরিণত হবে না। আর পশ্চিম পাকিস্তান ও তাদের একটাই কথা ছিল উর্দু ভাষা হবে রাষ্ট্রভাষা।এখন পূর্ব পাকিস্তান ও পশ্চিম পাকিস্তানের এই দ্বিমতের কারণে  মুক্তিযুদ্ধের সৃষ্টি হয়েছিল। পশ্চিম পাকিস্তানের ইয়াহিয়ার ভাষণ ছিল উর্দু হবে রাষ্ট্রভাষা। আর আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাষণ ছিল মায়ের মুখের ভাষা মাতৃভাষায় থাকবে রাষ্ট্রভাষা। আমরা কখনোই উর্দুকে সাপোর্ট দিব না।

জাতির পিতা রাষ্ট্রের অধিনায়ক শেখ মুজিবুর রহমানের বাংলাদেশের প্রতিটি নাগরিক অর্থাৎ ছাত্র জনতা দেশের দামাল ছেলেরা কৃষক এমন কেউ বা ছিল না যে যুদ্ধের জন্য ঝাঁপিয়ে পড়েনি। কিন্তু তারা ছিল নিরস্ত্র তবে তাদের ভিতরে ছিল সাহস দেশের প্রতি ভালোবাসা মহানুভবতা মায়ের মুখে ভাষাকে রক্ষা করার প্রতিশ্রুতি এগুলোই তাদেরকে নিয়ে গেছে যুদ্ধ করার মত স্থানে। আর অপরদিকে পশ্চিম পাকিস্তানি ছিল অনেক অস্ত্র অধিকারী তারা ছিলনা খালি হাতে তাদের ছিল সবকিছু।আর সেই সবকিছু সামনে নিরস্ত্র বাঙালি দাঁড়াতেও পিছপা হয়নি শুধু দেশের জন্য দেশকে ভালোবাসা দেশের মানুষকে ভালোবাসার কারণে।

আজ যারা দেশের বুকে বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ তাদের দেশের প্রতি এমন ভালোবাসা আর সততা আমাদেরকে এনে দিয়েছে স্বাধীন রাষ্ট্র বিজয় বাংলাদেশ স্বাধীন সার্বভৌমত্ব আর দেশকে করে দিয়েছে পৃথিবীর বুকে এক দৃষ্টান্ত। এ সকল বীরশ্রেষ্ঠরা বেঁচে নেই ।কিন্তু আমাদের মনে সারা জীবন তারা বেঁচে থাকবে। তাদের প্রতি আমাদের গভীর শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা সবসময় থাকবে ।তাদের স্মরণে আমরা এই বিজয় দিবস ,স্বাধীনতা দিবস, একুশে ফেব্রুয়ারি বিভিন্ন দিনগুলো পালন করে থাকি।এই দিনগুলোতে তাদের আত্মার মাগফিরাতের জন্য বিভিন্ন আয়োজন করা হয়ে থাকে সর্বত্র স্থানগুলোতে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এই দিনকে অনেক বড় করে উদযাপন করার জন্য নির্দেশ প্রদান করে থাকে সর্বত্র স্থানে স্কুল ,কলেজ, মাদ্রাসা ,ভার্সিটি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানগুলোতে। ১৬ই ডিসেম্বর এর বিজয় দিবসের কথা বলতে গেলে হয়তোবা শেষ হবে না কেননা দীর্ঘ নয় মাসের যুদ্ধের কথা তো আর এক পেজে শেষ করা সম্ভব নয়।

সর্বশেষে বলতে চাচ্ছি যে , এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য আপনাদেরকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। আমরা এতক্ষণ চেষ্টা করেছি আপনাদের সামনে তুলে ধরার জন্য ১৬ ই ডিসেম্বর বিজয় দিবসের উক্তি। জানিনা আমাদের এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনাদেরকে কতটুকু দিতে পেরেছি। তবে আশা রাখি আমাদের এই পোস্টটি আপনাদের ভালো লাগবে এবং কাজেও লাগবে। তবে আজ আর নয় আবার অন্য কোনদিন অন্য কোন পোস্টে আপনাদের সঙ্গে দেখা হবে। সেই পর্যন্ত ভালো থাকবেন সুস্থ থাকবেন আপনাদের দীর্ঘায়ু কামনা করছি আল্লাহ হাফেজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.